,





সুবিদ আলীর চ্যালেঞ্জের জবাব দিলেন সুনামগঞ্জের মানিক !

স্টাফ রিপোর্টার :::: সরকারি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য মহিবুর রহমান মানিক বলেছেন, ‘ঝোঁকের মাথায় হয়তো মুখ ফস্কে সুবিদ আলী ভূঁইয়া তাঁর মনের কথাটা বলে ফেলেছেন। তিনি জিয়াউর রহমানকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলেছেন। উনিতো আমার কিংবা দলের প্রতিপক্ষ কেউ নন যে ওনাকে ঘায়েল করার জন্য আমরা বানিয়ে বানিয়ে এই কথা বলবো।’ বৃহস্পতিবার বিকালে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাংসদ সুবিদ আলী ভূঁইয়া চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলেছেন, আমি জিয়াউর রহমানকে বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি বলিনি। তিনি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলেন, কেউ যদি এর প্রমাণ দিতে পারেন তাহলে আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব।
গত বুধবার সরকারি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে উপস্থিত মহিবুর রহমান মানিকসহ একাধিক সংসদ সদস্যের বরাত দিয়ে গতকালই অনলাইন গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশিত হয়। সুবিদ আলী ভূঁইয়ার বক্তব্য সম্পর্কে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংসদ মহিবুর রহমান মানিক বলেন, ‘তিনি এক সময় বিএনপি ঘরানার ছিলেন তখন হয়তো বিষয়টি বলতে এবং লিখতে পারেন। কিন্তু এখনতো তিনি আওয়ামী লীগের লোক তাই তাঁর মুখে এমন কথা মানায় না এবং গ্রহণযোগ্যও না।’
সুবিদ আলী ভূঁইয়ার চ্যালেঞ্জ প্রসঙ্গে সুনামগঞ্জ-৫ আসনের (ছাতক-দোয়ারাবাজার) সাংসদ মহিবুর রহমান মানিক বলেন, ‘আমিতো তাঁর সঙ্গে চ্যালেঞ্জে যাওয়ার কথা বলিনি। এটা চ্যালেঞ্জের বিষয়ও না। ওনি আমার প্রতিপক্ষও না। তিনি বলেছেন তাই আমরা তার প্রতিবাদ করেছি। আর আমিও চাই তিনি একথা (জিয়াউর রহমান প্রথম রাষ্ট্রপতি) সবসময় অস্বীকার করুক। তিনি যে আদর্শ ত্যাগ করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে এসেছেন তা আজীবন ধারণ করুন।’
গতকাল বুধবার সংসদীয় কমিটির বৈঠকের একাধিক সদস্যের বরাত দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় যে, বৈঠকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্মরণিকায় জিয়াউর রহমান প্রথম রাষ্ট্রপতি বলার প্রসঙ্গটি এলে সুবিদ আলী ভূঁইয়া তার সঙ্গে একমত প্রকাশ করলে উপস্থিত সাংসদ মানিকসহ অন্য সদস্যরা এর প্রতিবাদ করেন।
এই বক্তব্য নিয়ে তার নিজের সংসদীয় এলাকাসহ সারাদেশে তীব্র সমালোচার মুখে বৃহস্পতিবার বিকালে সুবিদ আলী ভূঁইয়া জাতীয় সংসদ ভবনের মিড়িয়া সেন্টারে দাবি করেন, ‘গতকালের বৈঠকে এ ধরনের কোনো কথা আমি বলিনি।’ তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, ‘জিয়াউর রহমানকে যদি আমি প্রথম রাষ্ট্রপতি বলে থাকি এবং এটা যদি কেউ প্রমাণ করতে পারেন, আমি রাজনীতি থেকে পদত্যাগ করবো, ইনশাল্লাহ।’
সুবিদ আলী ভূঁইয়ার বক্তব্যেও পরিপ্রেক্ষিতে জানতে চাইলে মহিবুর রহমান মানিক বৃহস্পতিবার রাতে বলেন, বৈঠকে উপস্থিত মঞ্জুরি কমিশনের প্রধানের উদ্দেশ্যে আমি বলেছিলাম, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের স্মরণিকায় জিয়াউর রহমানকে যে প্রথম রাষ্ট্রপতি উল্লেখ করা হয়েছে। আপনারা তাঁর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিয়েছেন কিনা? সেখানে স্বাধীনতার ঘোষণা নিয়ে কোন কথাই উঠে নি। আমার বক্তব্যের প্রেক্ষিতে সুবিদ আলী ভূঁইয়া বলেন, বিষয়টি আমি বলিও এবং লিখিও।
বর্তমান সংসদে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি সুবিদ আলী বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) ছিলেন। চাকরি শেষে বিএনপির মনোনয়ন চেয়েও না পেয়ে ২০০১ সালে কুমিল্লার দাউদকান্দি (কুমিল্লা-১) থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হেরেছিলেন তিনি।
এরপর তিনি আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে ২০০৮ সালে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হয়ে বিএনপির প্রভাবশালী নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে হারিয়ে সংসদ সদস্য হন।
নবম সংসদে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পাওয়ার পর এবার দশম সংসদে ফের নির্বাচিত হয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি হন সুবিদ আলী। জিয়াউর রহমানের ছেলে তারেক রহমান গত বছর তার বাবাকে বাংলাদেশের ‘প্রথম রাষ্ট্রপতি’ বলার পর তীব্র সমালোচনার মধ্যে পড়েন। তার বক্তব্য-বিবৃতি প্রচারে পরে আদালতের নিষেধাজ্ঞাও আসে।

এ সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •   
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

সম্পাদক ও প্রকাশক মো. নাজমুল ইসলাম
নির্বাহী সম্পাদক : আমিনুল ইসলাম রোকন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : আর কে চৌধুরী
সিলেট থেকে প্রকাশিত।
ফোন : ০৮২১-৭১১০৬৯,
মোবাইল : (নির্বাহী সম্পাদক-০১৭১৫-৭৫৬৭১০ )
০১৬১১-৪০৫০০১-২(বার্তা),
০১৬১১-৪০৫০০৩(বিজ্ঞাপন), ইমেইল : www.sylhetsurma2011@gmail.com
ওয়েব : www.sylhetsurma.com