,
output_6836qW

নদীতে চলে ট্রাক টিলার গায়ে পুকুর

আব্দুল আহাদ
অপরিকল্পিত পাথর উত্তোলন আর পাহাড়ি ঢলের সঙ্গে ভারত থেকে নেমে আসা বালিতে ভরাট হয়ে যাচ্ছে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া জাফলংয়ের পিয়াইন নদী। এককালের খরস্রোতা নদীটির তলদেশ ভরাট হয়ে এখন ধু-ধু বালুচরে পরিণত হয়েছে। এতে নদীতীরবর্তী এলাকার জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়েছে। ব্যাহত হচ্ছে জন জীবন। এদিকে টিলার বুকে পুকুর বানিয়ে অভিনবকায়দায় ধংশ করা হচ্ছে টিলা ও সমতল ভূমি। টিলা আর সমতল ভূমিতে খোঁড়া হয় গর্ত একসময় এতে জমে পানি। তা নিষ্কাশনের জন্য ব্যবহার করা হয় যন্ত্রদানব। এর পর দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নৌকা আর ট্রাক দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পাথর।
স্বাধীনতার আগে এমনকি পরেও পিয়াইন নদী নিয়ে নানা পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়। কিন্তু আজ পর্যস্ত কোন প্রকল্পই আলোর মুখ দেখেনি। পরিবেশবিদরা আশঙ্কা করছেন, নদীটি যদি এখনই সংস্কার করা না হয় তাহলে এটি বিলিন হয়ে যেতে পারে কালের গর্ভে। ফলে এখানকার প্রাকৃতিকভাবে পাওয়া পাথর উত্তোলনও বন্ধ হয়ে যাবে। হারিয়ে যাবে জাফলংয়ের সৌন্দর্য। হাজার হাজার শ্রমজীবী লোক বেকার হয়ে পড়বে। ফলে পাহাড়ি ঢলে ফসল ও জনপদ বিনষ্ট, জাফলং নদীর গতিপথ পরিবর্তনসহ ভাঙন তীব্র হওয়া, পাথর ফুরিয়ে যাওয়াসহ অদূর ভবিষ্যতে অনুন্নত এই জনপদে অর্থনৈতিক বিপর্যয় সৃষ্টির আশঙ্কা করছে সবাই।
সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানা গেছে, সিলেট মহানগরী থেকে ৬২ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে গোয়াইনঘাট উপজেলায় জাফলং-এর অবস্থান। নদীটির একটি শাখা ডাউকি নাম (স্থানীয়ভাবে ‘জাফলং’ বলা হয়ে থাকে) ধারণ করে দক্ষিণ দিকে প্রবাহিত হয়ে গোয়াইনঘাটের পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের মুখতলা এলাকায় গিয়ে সারি নদীর সাথে মিলিত হয়েছে। অপর একটি শাখা পিয়াইন নাম ধারণ করে ভারতের মেঘালয় পাহাড়ের পাদদেশ ঘেঁষে পশ্চিম দিকে প্রবাহিত হয়ে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ধলাই নদীর সাথে মিশেছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ডাউকির বুকে পর্যটকদের আনাগোনা রয়েছে। তারা নৌকা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কিন্তু ধু ধু বালুচর বুকে নিয়ে বিমর্ষ চিত্তে যেন পড়ে আছে পিয়াইন নদী। বালুর স্তর কোথাও বেশ উঁচু, কোথাও সমাস্তরাল। রংপুর থেকে সপরিবারে জাফলংয়ে বেড়াতে আসা মাহমুদুর রহমানের সঙ্গে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। হতাশাভরা কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘কয়েক বছর আগেও পিয়াইন নদীর স্বচ্ছ জলধারায় ঝাঁপিয়ে পড়ে অন্যরকম এক আনন্দের ফল্গুধারা বইতো মনে। আর এখন পিয়াইন যেন শুধুই স্মৃতি!’
এ নদীর উৎপত্তি হিমালয় থেকে। এর স্রোতে লাখ লাখ টন পাথর চলে আসে পিয়াইন নদীতে। পাথরের ব্যবহার বাড়ার পর ব্যবসায়ীরা পাথরের সন্ধানে নৌ পথে জাফলং আসতে শুরু করেন। পাথর ব্যবসার প্রসার ঘটতে থাকায় গড়ে উঠে নতুন জনবসতিও। পাথর উত্তোলনের জন্য বিখ্যাত এই পিয়াইন নদীকে ঘিরে চলে কয়েক হাজার পরিবারের দিনাতিপাত। এই পিয়াইন নদী থেকেই সিংহভাগ পাথর দেশের বিভিন্ন স্থানে যায়। মহান সৃষ্টিকর্তার এক বিস্ময়কর দৃষ্টাস্ত লক্ষ্য করা যায় এখানে। সারাবছর এই নদী থেকে হাজার হাজার টন পাথর উত্তোলন করা হয়। কিস্ত এই পাথরের যেন শেষ নেই। এই পাথর উত্তোলন করে জীবন নির্বাহ করছে শত শত পরিবার। এখানে যারা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপলব্ধি করতে আসেন তাদের মাঝে এই পাথর উত্তোলনের দৃশ্যটাও একটা উপভোগ্য বিষয়। শত শত ডিঙ্গি নৌকা নিয়ে পাথর তুলছে স্থানীয়রা। তবে নদীটির বুক চিরে যেভাবে উজান থেকে নেমে আসা বালুর চর গজে উঠছে তাতে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে নদীটি মানচিত্র থেকে হারিয়ে যেতে পারে। নদীটি খননের উদ্যোগ বারবার নেয়া হলেও তার কার্যকারিতা দেখা যায়নি।
চল্লিশের দশকে পিয়াইন-ধলাই নদীতে জাহাজ চলাচলের বিষয়টি জনশ্রুতি আছে। আর এখন পিয়াইন নদীতে বর্ষা মওসুমে নৌকা চলাচলও দুষ্কর হয়ে পড়েছে। অপরদিকে নাব্যতা হারানো নদীতে পাথরের প্রাকৃতিক উৎসও ফুরিয়ে যাচ্ছে দিন দিন। এখন অনেকটা জনপদ ধ্বংস করে পাথর উত্তোলন করা হচ্ছে। স্থানীয়রা জানান, এভাবে চলতে থাকলে এক সময় অনুন্নত এই জনপদে অর্থনৈতিক বিপর্যয় দেখা দিবে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপ্র্বূ লীলাভূমি জাফলং সংলগ্ন এই পিয়াইন নদী খনন না হলে তা গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জের জন্যে দুঃখই বয়ে আনবে। স্থানীয়রা আরও জানান, মাঝে মাঝে ভারত অধ্যুষিত ডাউকি দিয়ে আকস্মিক ঢল নামে। ফলে জাফলং চা বাগানসহ এখানকার স্থানীয় বাড়ি-ঘরে ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়। পানি উন্নয়ন বোর্ড সিলেটের এক নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, পিয়াইন নদী খনন নিয়ে অতীতে অনেকবার সার্ভে করা হয়েছে। প্রায় ১৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এলাকা সীমাস্ত নদী হিসেবে চিহ্নিত। ফলে এ ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নে জেআরসির সিদ্ধাস্ত প্রয়োজন। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান এম তৈয়বুর রহমান বলেন, ছাতকের সুরমায় যেখানে পিয়াইন-ধলাই স্রোতধারা মিশেছে, সেখান থেকে উজানে সীমাস্ত এলাকায় ঢোকার পূর্ব পর্যস্ত যে ১৫/২০ কিলোমিটার ভরাট রয়েছে তা খনন করা উচিত। তার মতে, এতে ধলাইর স্রোত দ্রুত ভাটিতে চলে যাবে। তখন উজানে পিয়াইন নদীর ওপর চাপ কমতে শুরু করবে। পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হামিদুল হক ভূঁইয়া বাবুল বলেন, পিয়াইন ভরাট হয়ে যাওয়ায় বর্ষার ঢলে তার ইউনিয়নের জাফলং চা বাগান ও ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এতে গ্রামীণ অবকাঠামোর যথেষ্ট ক্ষতি হয়। পিয়াইন নদী এলাকার বাসিন্দা হারুনুর রশিদ (৩০) এ প্রতিবেদকের কাছে বলেন, এই নদী তাদের রুটি রোজগারের একমাত্র অবলম্বন। এখান থেকে পাথর উত্তোলন করেই ৫ সদস্যের পরিবার চলে। তিনি বলেন, পিয়াইন ভরাট হয়ে গেলে আমার মত অনেকেই না খেয়ে থাকবে। এই নদীটির সংষ্কার প্রয়োজন। এ ছাড়া বর্ষায় পানি দ্রুত সরে না যাওয়ার কারণে গোয়াইনঘাটবাসী পাহাড়ি ঢলে বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছেন। এলাকাবাসী অবিলম্বে পিয়াইন সমস্যার সমাধান দাবি করেন।
এদিকে পাথর খেকোঁদের কারণে গত ২৩ তারিখ পাথর কোয়ারীতে নিহত হন ৬ জন । ছয়টি মৃতদেহের মধ্যে ৪ টি গোপনে সরিয়ে ফেলা হয়। পরের দিন বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ ছাপা হলে নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন। স্বজনদের আবেদনের পেক্ষিতে পুলিশ গুমকৃত চার লাশ খুজতে থাকে। অবশেষে বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারী) রাতে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ বলে এই ৫ লাশ কবর থেকে উঠিয়ে ময়না তদন্ত করা হবে এবং এই নিহত ৫ লাশের জন্য আদালতে আবেদন করে তা ঐ মামলায় যুক্ত করা হবে। নিহতরা হলেন, নেত্রকোণা জেলা ও থানার কর্ণখলা গ্রামের মো. জৈন উদ্দিনের ছেলে মো: জহির উদ্দিন (৪৬), একই গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে মো. আল হাদিস (১৮), একই জেলা ও থানার মশোয়া গ্রামের মৃত আব্দুল মফিজের ছেলে আব্দুল কাদির ( ১৮), পূর্ব ধলা থানার জাগির গ্রামের মৃত জমত আলীর ছেলে মো. খোকন মিয়া (৩৫), নেত্রকোণা থানার কান্দাপাড়া গ্রামের মৃত আমজদ আলীর ছেলে আব্দুল কুদ্দুছ (৩৮)। এই ৫ জন ঐ দিনের ঘটনায় নিহত হলেও স্থানীয় পুলিশ ও প্রসাশন বলেছিলো দুইজন মাটি চাপায় মৃতের কথা।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গত ২৭ তারিখে শাহ আরেফিন টিলায় অভিযান চালিয়ে ধ্বংস করা হয় বোমা ও সেলো মেশিন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট জিয়াউল সোহেলের নেতৃত্বে অভিযানকালে দুটি বোমা মেশিন ও ৮টি সেলো মেশিন পুড়িয়ে ধ্বংস করে আদালত। এসময় অবৈধ পাথর বহনকারি একজন ট্রাক্টর চালক ও এক শ্রমিককে আটক করা হয়। অভিযানের পর জিয়াউল সোহেল বলেন, এই টিলা থেকে পাথর উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তবু নিষেধাজ্ঞা অম্যান্য করে কিছু লোক পাথর উত্তোলন করছে। এখন থেকে নিয়মিত এই এলাকায় অভিযান চলবে। এর পূর্বে গত মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারী) জাফলংয়ে টাস্ক ফোর্সের অভিযানে ১১টি ক্রাশার (পাথর ভাঙ্গার যন্ত্র) মেশিন উচ্ছেদ ও পিয়াইন নদী থেকে অবৈধ ভাবে পাথর উত্তোলনের দায়ে ৪টি সেইভ মেশিন ধ্বংস ও লোকালয়ে অবৈধভাবে ক্রাশার মেশিন স্থাপান করে পাথর ভাঙ্গার দায়ে এক প্রতিষ্ঠানের মালিকের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।
ঘুরতে আসা পর্যটকরা বলেন, কোম্পানীগঞ্জ, ভোলাগঞ্জ, জাফলং সহ গোয়্ইানঘাটের বিস্তীর্ণ এলাকয় মৃত্তিকার বুক জুড়ে এখন শুধু পাথর খেকোদের তান্ডব লিলার চিত্র। পরিবেশবিদরা বলছেন, বিস্তীর্ণ এলাকায় গভীর পুকুর খননের কারণে এই এলাকাগুলো রয়েছে ভয়াভহ ভূমি ধ্বসের আশংঙ্কায়। পরিবেশের দোহাই দিয়ে সিলেটের পাথর সাম্ররাজ্যে প্রতিনিয়তই অভিযান চালানো হয়। কিন্তু লোক দেখানো কার্যক্রম শেষে কাঁচা টাকার কাছে হেরে যায় অভিযানও। স্থানীয় রাজনৈতিক থেকে প্রশাসন এমনকি সাংবাদিকদের পকেটেও ঢুকে পাথর রাজ্যের কাঁচা টাকা। ফলে থামেনা ধ্বংস লিলা। কিছু কিছু পাথর কোয়ারী নিয়ে বিগত দিনে প্রশাসনিক জামেলা হয়েছিল এবং পাথর সা¤্ররাজ্য দখল নিয়ে কোম্পানীগঞ্জ যুবলীগ নেতাকে খুনও করা হয়েছিল। এই হত্যা মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধিন। এতো কিছুর পরও পাথর উত্তোলন ও বোমা এবং সেলু মেশিন ব্যবহারে ছিলো আইনী নিষেধাজ্ঞা। তবুও বিস্তীর্ণ এলাকায় গভীর গর্ত ও পাহাড় টিলা কেটে পাথর উত্তোলন করে আসছে পাথর খেকো আঞ্জু মিয়া, ছোরাব আলী, বসর মিয়া, হুশিয়ার আলী, আ: আজিজ ও তার ছেলে শাবুদ্দিন, মাসুক মিয়া, বিজন সরকার, সাচ্চা মিয়া, ছয়ফুল আলম, গিয়াস উদ্দিন, নাছির মেম্বার, পেট কাটা জালাল, মোহাম্মদ আলী ও পাথর রাজ্যের রাজা জিহাদ আলী, পাথর শামিম ও শাহ আরেফিন টিলার পাথর কোয়ারী থেকে চাঁদা উত্তোলনকারী কয়েকজন চেয়ারম্যান। কারণ তারাই মূলত কোম্পানীগঞ্জের পাথর কোয়ারীগুলো নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। তাছাড়া এসকল কোয়ারীতে কোন ধরণের আইনী জটিলতা বা হতাহতের ঘটনা ঘটলে তা ধামাচাপা দেয়ার জন্য পুলিশ, স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ ও বন বিভাগকে নিয়ন্ত্রণ করে ঐ সকল পাথর খেকো ও পাথর রাজ্যের রাজারা। ফলে অনায়াসে চলে টিলা, পাহাড় ও নদি থেকে বোমা মেশিন ও সেলো মেশিন দিয়ে পাথর উত্তোলন।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), সিলেট শাখার সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম কিম বলেন, বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির করা রিটের পরিপ্রেক্ষিতে এক রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে মঙ্গলবার সিলেট সদর, কোম্পানীগঞ্জ, জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কানাইঘাট এই পাঁচ উপজেলায় থাকা অনুমোদিত পাথর ভাঙার মেশিনগুলো (স্টোন ক্রাশিং মেশিন) নীতিমালা অনুসারে তিন মাসের মধ্যে স্টোন ক্রাশিং জোনে স্থানান্তরিত করতে হবে । আর যাদের অনুমোদন নেই তাদের উচ্ছেদ করতে হবে। বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।‘পিয়াইন নদী মরে যাওয়ায় পরিবেশের অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে। তাছাড়া পিয়াইনের স্বচ্ছ জলরাশির স্রোত না থাকায় পর্যটন স্পট জাফলং সৌন্দর্য হারাচ্ছে।’ পরিবেশ রক্ষা ও পর্যটন শিল্পের বিকাশে পিয়াইন নদী খনন করা জরুরি বলে মস্তব্য করেন তিনি। একই মস্তব্য করেন গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  বলেন, ‘অপরিকল্পিতভাবে পাথর উত্তোলন আর ভারতের উজান থেকে নেমে আসা বালির ঢলের কারণেই পিয়াইন নদী আর টিলার আজ এ অবস্থা।’কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন জানান, সকল প্রশাসনকে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করে টিলা ও নদী থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করে পাথর খেকোরা। এ সকল বিষয়ে জেলা প্রশাসকের নিকট অভিযোগ করলে কয়েক দিন পাথর উত্তোলন বন্ধ ছিলো। কিন্তু পরে আবার তা সেই আগের মতো পাথর উত্তোলন শুরু হয়। যা আজঅবধি চলছে। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জানান, অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন বন্ধে সকল সময় অভিযান অব্যাহত আছে। আর উপজেলা প্রশাসনের নামে মাসে টাকা আসার কথা একদম মিথ্যা। স্থানীয় বাসিন্দা  রুবেল আহমদ বলেন, পাথর তোলার কারণে প্রায় সময় প্রাণ হানীর ঘটনা ঘটে। এতে আমাদের অনেক ঝামেলার মধ্যে পড়তে হয়। অধিক মুনাফার লোভীদের কারনে এলাকার করুণ এ অবস্থা। আইনপ্রোয়োগকারি সংস্থা যদি সঠিক ভাবে তাদের কার্যক্রম চালায় তাহলে পরিবেশ ও প্রতিবেশ সবই ঠিক ভাবে চলতো।



সংবাদটি 217 বার পঠিত
এ সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •   
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

আর্কাইভ

SatSunMonTueWedThuFri
     12
3456789
10111213141516
24252627282930
       
  12345
6789101112
2728293031  
       
15161718192021
2930     
       
    123
       
    123
25262728   
       
 123456
28293031   
       
     12
17181920212223
24252627282930
31      
   1234
2627282930  
       
  12345
6789101112
13141516171819
       
.......................................................................................................... ............................................................................................................. logo copy
12-4-300x214
সম্পাদক ও প্রকাশক মো. নাজমুল ইসলাম
নির্বাহী সম্পাদক : আমিনুল ইসলাম রোকন
সিলেট সুরমা মিডিয়া কর্পোরেশনের পক্ষে শহিদ আহমদ চৌধুরী সাজু কর্তৃক মুদ্রিত ও
সিটি সেন্টার (১০ম তলা),জিন্দাবাজার,
সিলেট থেকে প্রকাশিত।
ফোন : ০৮২১-৭১১০৬৯,
মোবাইল : (নির্বাহী সম্পাদক-০১৭১৫-৭৫৬৭১০ )
০১৬১১-৪০৫০০১-২(বার্তা),
০১৬১১-৪০৫০০৩(বিজ্ঞাপন), ইমেইল : www.sylhetsurma2011@gmail.com
ওয়েব : www.sylhetsurma.com
শিরোনাম :
নবীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় মা-ছেলে নিহত টাংগুয়ার হাওরে পানিতে ডুবে এমসি কলেজ ছাত্র নিহত বিশ্বের কয়েকটি দেশে সাইবার হামলা সিলেটের পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো ঈদের ছুটিতে লোকারণ্য  সিলেটে হাওর থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার একজনের ‘প্রোফাইল পিকচার’ অন্যজনের হাতে যাওয়া ঠেকাতে কঠোর হচ্ছে ফেসবুক দেশের পেক্ষাগৃহে ঈদে মুক্তি পেয়েছে ‘নবাব’, ‘রাজনীতি’ ও ‘বস-২’ দেশের স্বার্থে রাজনীতিতে ইতিবাচক ধারা ফিরিয়ে আনার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের দেশব্যাপী পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত বিপন্ন প্রজাতির ‘সেই’ শকুনটি মারা গেল ঈদ জামাত কখন কোথায় সিলেটে ঈদ জামাত থাকবে নিরাপত্তা বলয়ে নতুন নগর ভবনে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন মেয়র কাউন্সিলর লিপন বকস্’র ঈদ শুভেচ্ছা সিলেটবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাংবাদিক রাজু মিয়া সিলেট বিভাগের সর্বস্তরের জনতাকে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বিএনপির ঈদ শুভেচ্ছা “ইমাম খতিব, মুসলমানদের মাঝে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও সম্মানের অধিকারী’’- হাজী মারুফ মরহুম মোহাম্মদ মকন মিয়া ছিলেন এই অঞ্চলের অভিভাবক : মিসবাহ্ উদ্দিন সিরাজ সিলেটে দৈনিক আমাদের কন্ঠ’র অফিস উদ্বোধন ও ইফতার মাহফিল সম্পন্ন এয়ারটেল মেঘা গিফ্ট বিজয়ী হলেন আজিম স্টোর ও আর এন আর টেলিকম কদমতলীতে বিএনপি নেতা আকতার রশিদের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল সম্পন্ন মির্জা ফখরুলের ওপর হামলায় সিলেট জেলা বিএনপির নিন্দা মোহাম্মদ মকন মিয়া’র মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল মঙ্গলবার এতিমদের সাথে কাতার জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ইফতার বাংলাদেশ রেলওয়ে গ্রেটার সিলেট কমিউনিটির ইফতার মাহফিল  বাংলাদেশে ভোগ্যপণ্য সামগ্রির মূল্য এখনও জনগণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে : আবু জাহির এমপি সাউথ সুরমা উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত খালেদা জিয়াকে মানুষের দুর্ভোগ নিয়ে রাজনীতি করতে দেয়া হবে না বিএনপি ছাড়া কোনো নির্বাচন হবে না : মির্জা ফখরুল পাহাড়ে উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত, মৃতের সংখ্যা ১৫৬ জগন্নাথপুরে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুলছাত্রী সিলেটে আজ যাত্রাবিরতি করবেন প্রধানমন্ত্রী লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত যুবদল’কর্মী আলতাফকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন সহস্রাধিক নেতা কর্মীদের ফুলে সিক্ত তায়েফ অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন হুমায়ুন রশিদ চত্ত্বর শাখার ইফতার মাহফিল সম্পন্ন (ভিডিওসহ) মাওলানা মুহিউদ্দীন খান উম্মাহর একজন দরদী অভিভাবক ছিলেন : লে.কর্নেল (অব.) আতাউর রহমান পীর সিলেট নগরীতে খাল দখল করে নির্মিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু কয়েছ-হেলেন চক্র নিরীহ লোকদের জমি দখল ও হত্যার হুমকি দিচ্ছে : জহুরা জিয়া হকারদের বিতাড়ন মানবাধিকারের চরম লংঘন : পুনর্বাসন দাবি সোবহানীঘাট থেকে ১০ বছরের শিশু কন্যা নিখোঁজ লন্ডনে অগ্নিকাণ্ড : মৌলভীবাজারের এক পরিবার নিখোঁজ কদমতলী যুব-সমাজের ঐতিহ্যের ধারা প্রশংসনীয় : আব্দুল বাছিত সেলিম (ভিডিওসহ) নিহতের সংখ্যা ১২৫ : মাটিচাপা পড়ে আছেন অনেকেই জেলা বিএনপির ইফতার ও দোয়া মাহফিল কমলগঞ্জের মাগুরছড়া ট্র্যাজেডি দিবস আজ সিলেটের ঈদ বাজারে ‘বাহুবলী আর সুলতান সুলেমান’ দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকর থেকে একশ’ পিস ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার দৈনিক হবিগঞ্জ সমাচার পত্রিকার সম্পাদক গ্রেপ্তার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে দুর্ঘটনায় পুলিশের ওসিসহ নিহত ২ অটো টেম্পু অটোরিক্সা চালক শ্রমিক জোট’র হুমায়ুন রশীদ চত্বর শাখার ইফতার মাহফিল সম্পন্ন