ভালোবাসায় সিক্ত কালিকাপ্রসাদ, শেষকৃত্য সম্পন্ন

প্রকাশিত: ১:০৮ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৮, ২০১৭

সিলেট সুরমা ডেস্ক::

 

প্রয়াত শিল্পী কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্যকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক, প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গসহ তাঁর বন্ধু-স্বজন ও ভক্তরা। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) বিকেলে কলকাতায় শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এই শিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালককে। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে মরদেহের ময়নাতদন্তের পর কালিকাপ্রসাদের দেহ কলকাতায় নেয়া হয়। কলকাতায় ঢোকার আগেই নবান্ন থেকে বেরিয়ে এসে দ্বিতীয় হুগলী সেতুর কাছে কালিকাপ্রসাদের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে উপস্থিত রাজ্য পুলিশের ডিজি সুরজিৎ কর পুরকায়স্থ ও হাওড়ার পুলিশ কমিশনার ডি পি সিংহ মালা দিয়ে তাঁর মরদেহে শ্রদ্ধা জানান। লিকাপ্রসাদের স্ত্রীকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এরপর কালিকার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় দক্ষিণ কলকাতার সন্তোষপুরের বাড়িতে। সেখানে প্রতিবেশী ও বন্ধুরা কালিকাপ্রসাদকে তাঁদের শেষ শ্রদ্ধা জানান। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কালিকাপ্রসাদের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় রবীন্দ্র সদনে। সেখানে শিল্পী পূর্ণদাস বাউল, হৈমন্তী শুক্লা, ইন্দ্রানী সেন, ঊষা উত্থুপ, লোপামুদ্রা, শ্রীজাত, শ্রীকান্ত আচার্য, মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়, তথ্য-সংস্কৃতি মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন, কলকাতা পুরসভার চেয়ারপার্সন মালা রায়, বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী সহ সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক জগতের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা শেষবারের জন্য কালিকাপ্রসাদকে শ্রদ্ধা জানান। এছাড়াও দোহারের অগণিত ভক্ত শেষবারের মতো কালিকাকে দেখতে রবীন্দ্র সদন-নন্দন চত্বরে ভিড় জমান। বিকেল ৬টার দিকে রবীন্দ্র সদনে আসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি শ্রদ্ধা জানানোর পর কেওড়াতলা শশ্মানের উদ্দেশে রওনা হয় শববাহী গাড়ি। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সেখানে কালিকাপ্রসাদের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ