এসআই রিপন দাশ’র দক্ষতায় ৩ ঘন্টার মধ্যে খুনি গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১০:১২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০১৯

এসআই রিপন দাশ’র দক্ষতায় ৩ ঘন্টার মধ্যে খুনি গ্রেফতার

সিলেট সুরমা ডেস্ক : সিলেটের দক্ষিণ সুরমার পিরোজপুরে জিআই পাইপের আঘাতে সেবুল মিয়া ওরফে রাজা (৩৫) নামে এক রিকশা চালককে খুন করা হয়েছে। এই সংবাদ পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে সংঙ্গীয় ফোর্সসহ ছুটে যান দক্ষিণ সুরমা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিপন দাশ। ঘটনাস্থলে গিয়ে আশপাশের লোকজনের কাছ থেকে বিস্তারিত জানেন তিনি। তখন আসামিকে গ্রেফতার জন্য চেষ্টা চালান। পাশেই বাস টার্মিনাল। খুনি পালানোর জন্য বাস টার্মিনালে অবস্থান করতে পারে বলে সাথে সাথে বাস টার্মিনাল এলাকায় পুলিশ পাঠিয়ে দেন তিনি। তারপর খুনির বাড়ি ও আশপাশ এলাকায় খুজতে থাকেন এসআই রিপন দাশ ও তার সংঙ্গীয় ফোর্স। এক দিকে মুঠোফোনে সিনিয়দের প্রযুক্তিগত সহযোগিতা নিয়ে মাত্র তিন ঘন্টার মধ্যে খুন করে পালিয়ে যাওয়ার সময় খুনি পিরোজপুর এলাকার আইনুল্লাহর ছেলে সোহেল আহমদকে (২১) গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন তিনি।

উল্লেখ্য, ১৬ জানুয়ারি বুধবার রাতে দক্ষিণ সুরমার পিরোজপুরের এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃত সেবুল সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজি ইউনিয়নের আকিলপুর গ্রামের করম আলীর ছেলে। তিনি দক্ষিণ সুরমার লাউয়াই এলাকার একটি রিকশার গ্যারেজে থাকতেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন রিকশা চালিয়ে এসে পিরোজপুর এলাকার একটি দোকানে বসে সময় কাটাতেন সেবুল। ওই দোকানে বসে থাকাকালীন চিপস কিনতে আসেন পিরোজপুর এলাকার আইনুল্লাহর ছেলে রাজমিস্ত্রি সোহেল আহমদ (২১)। দোকানির কাছে এক প্যাকেট চিপস চাইলে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন সেবুল। চিপসের প্যাকেটটি সোহেলের হাতে ছুঁড়ে দিতে গেলে সেটি মাটিতে পড়ে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গালিগালাজ শুরু করেন সোহেল। এ নিয়ে কথা কাটা কাটির এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাত করে সেবুলকে মেরে ফেলার হুমকি দেন সোহেল। কিছুক্ষণ পরে সোহেল বাড়ি থেকে জিআই পাইপ নিয়ে সেবুলের মাথায় এলোপাথাড়ি আঘাত মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। পরে তাকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ