• ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

‘দেশ ও জাতিকে কিছু দিতে হলে জ্ঞান অর্জন করতে হবে’

sylhetsurma.com
প্রকাশিত অক্টোবর ২, ২০১৯
‘দেশ ও জাতিকে কিছু দিতে হলে জ্ঞান অর্জন করতে হবে’

সিলেট সুরমা ডেস্ক :::
বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সিলেট আগমনের শতবর্ষপূর্তিতে আয়োজন করা হয়েছে ‘সিলেটে রবীন্দ্রনাথ : শতবর্ষ স্মরণোৎসব’। কবিগুরুর আগমনের এই মাহেন্দ্রক্ষণকে স্মরণীয় করতে সিলেটে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হবে। এই স্মরণোৎসবের অংশ হিসেবে শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়েছে বিভিন্ন বিষয়ের প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় সিলেট, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজার থেকে দেড় হাজারেরও বেশী প্রতিযোগী। স্মরণকালে সিলেটের সর্ববৃহৎ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা এটি। এর আগে কোন প্রতিযোগিতায় এত প্রতিযোগী অংশ নেয়নি।
শুক্রবার সকাল ১০টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন উৎসবের আহবায়ক সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এসময় আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, সিলেটে দল-মত নির্বিশেষে সকলের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হবে ‘সিলেটে রবীন্দ্রনাথ : শতবর্ষ স্মরণোৎসব’। এ লক্ষ্যে গঠিত কর্মপর্ষদ খুব সুন্দরভাবে কাজ করে যাচ্ছে। খুব ভালোভাবে চলছে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি। সিলেটের সকলকে নিয়ে এ স্মরণোৎসব একটি বিশাল কর্মযজ্ঞ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
তিনি বলেন, দেশের কোথাও এই সময়ে রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে এত বড় আয়োজন হচ্ছে না, যেটি সিলেটে হতে যাচ্ছে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার ব্যপারে সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদস্য সচিব ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। উৎসব কর্মপর্ষদের যুগ্ম সদস্য সচিব ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সিলেটের সভাপতি আমিনুল ইসালম লিটন এবং সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশুর পরিচালনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও উৎসব কর্মপর্ষদের যুগ্ম আহবায়ক ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ। অতিথি হিসেবে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ ও সিলেট জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দেবজিৎ সিনহা।
আরো উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্কার্স পার্টির সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক সিকান্দার আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এ কে শেরাম, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আল আজাদ, জ্যোতির্ময় সিংহ মজুমদার, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সদস্য শামসুল আলম সেলিম, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সিলেটের সাধারণ সম্পাদক গৌতম চক্রবর্তী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত, সিলেট নজরুল পরিষদের আহবায়ক আমিরুল ইসলাম বাবু, সদস্য সচিব নীলাঞ্জন দাস টুকু, কথাকলি সিলেটের সাধারণ সম্পাদক অরুপ শ্যাম বাপ্পী প্রমুখ।
উদ্বোধন শেষে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সংগীত, সারদা স্মৃতি ভবন ও সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সে আবৃত্তি, নৃত্য ও অভিনয়, সিলেট সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে চিত্রাঙ্কন এবং রাজা জিসি হাই স্কুল ভেন্যুতে রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রত্যেকটি প্রতিযোগিতাস্থল ঘুরে দেখেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।