৪ মাস পর শিশু পেলো বাবার সন্ধান

প্রকাশিত: 10:25 PM, December 14, 2016

শাকির আহমদ, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় ৪ মাস পর মায়ের চতুরতায় বাবার সন্ধান পেলো এক হতভাগা মেয়ে শিশু। বুধবার সকালে উপজেলার হিঙ্গাজিয়া বাজার থেকে স্থানীয় সচেতন মানুষের সহায়তায় অপু মালাকার (২৫) নামে সেই ধিকৃত বাবাকে আটক করে শিশু মেয়েটির মা। এতে আলোচনা সমালোচনা ঝড় বইছে সেই এলাকার চায়ের আড্ডায়।
জানা যায়, উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের হরিনগর গ্রামের উৎপল মালাকারের ছেলে রাজমিস্ত্রি অপু মালাকার (২৫) প্রেমের টানে উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের গণকিয়া গ্রামে তার প্রেমিকার সাথে নিয়মিত দেখা করতো। এক সময় প্রণয় থেকে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে তারা। এখন থেকে ১৭ মাস আগে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে এক ছাঁদের নিচে দীর্ঘদিন মেলামেশার পর প্রেমিকার শারীরিক পরিবর্তন (অন্ত:সত্তা) লক্ষ্য করে। প্রেমিকা ও তার পরিবারের রোষানল থেকে নিজেকে রক্ষা করতে সেখান থেকে সে পালিয়ে যায়। অনেকদিন অপেক্ষা করে অপু মালাকারের কোন সন্ধান না পেয়ে অসহায় প্রেমিকা একটি মেয়ে শিশুর জন্ম দেন।  আর জন্ম থেকেই শিশুটি তার বাবার পরিচয় থেকে বঞ্চিত ছিলো। এ ঘটনায় শিশু মেয়ে, মা ও তাদের পরিবারকে সমাজের পঞ্চায়েত থেকে বের করে দেয়া হয়। কিন্তু হাল ছাড়েননি শিশুটির মা। সন্ধান করতে থাকেন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে। একপর্যায়ে উপজেলার হিঙ্গাজিয়া বাজারে তার সন্ধান পাওয়া যায়। খবর পেয়ে বুধবার সকালে শিশুটির মা সমাজের কিছু সচেতন মানুষের সহায়তায় তাকে আটক করেন। পরে কুলাউড়া থানা পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় বুধবার বিকাল ৪টায় ধর্মীয় শাস্ত্রমতে কুলাউড়া পৌর কালিবাড়িতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন করা হয়। এতে ঐ মেয়ে শিশুটি ফিরে পেলো তার পিতৃপরিচয়। আর শিশুটির মা ফিরে পেলো সমাজপতিতের সমাদর।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কুলাউড়া থানার এসআই কানাই লাল চক্রবর্তী জানান, বুধবার বিকালে পুলিশ ও স্থানীয় গণমান্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতে ধর্মীয় শাস্ত্রমতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ