অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন বন্ধে প্রয়োজন আইনের কঠোর প্রয়োগ

প্রকাশিত: 10:33 PM, November 29, 2017

 সিলেটে বেলার আলোচনা সভা
সিলেট সুরমা ডেস্ক : অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের ফলে প্রকৃতি ও পরিবেশের যে ক্ষতি সাধিত হচ্ছে, এর কুফল মানুষের জীবনেও পড়ছে। এজন্যে পরিবেশ রক্ষার লক্ষ্যে শুধু প্রশাসন নয় সমাজের সবাইকে নিসম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের কমিটমেন্ট থাকতে হবে।
সরকার সবার বাসস্থানের জন্য কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। আমরা কারো প্রতিপক্ষ নই। কিন্তু পাথর উত্তোলন বন্ধ না হলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যকে রক্ষা সম্ভব নয়, সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষাও সম্ভব নয়। প্রাকৃতিক রক্ষা গুরুত্ব অপরিসীম। কারন মানুষ মিথ্যা বলতে পারে কিন্তু প্রকৃতি ও ছবি মিথ্যা বলতে পারে না।

বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা)-এর উদ্যোগে ‘অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন: প্রয়োজন আইনের কঠোর প্রয়োগ’ শীর্ষক আলোচনা বক্তারা একথা বলেন। বুধবার নগরীর একটি হোটেলে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সুজন এর সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট-এর উপপরিচালক আলতাফ হোসেন, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবীর।

কর্মশালায় মুক্ত আলোচনা সভায় অংশ নেন, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী, ইমজার সভাপতি আল আজাদ, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব-এর সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদারুল আলম নবেল, জাতীয় মহিলা আইনজীবি সমিতি সিলেট বিভাগীয় প্রধান এডভোকেট সৈয়দা শিরিন আক্তার, জাফলং আমির আলী উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক মো: সরোয়ার হোসেন, এডভোকেট কামাল হোসেন, দেলোওয়ার হোসেন, তাহমিনা রোজি, কয়েস আহমদ সাগর প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে শুরুতে ‘অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন: প্রয়োজন আইনের কঠোর প্রয়োগ’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেলা সিলেট –এর বিভাগীয় সমন্বয়ক এডভোকেট শাহ সাহেদা আখতার।

আলোচনায় সভায় বক্তারা আরো বলেন, যারা অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনে জড়িত তাদেরকে আইনে আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। প্রকৃতির উপরে যে নির্যাতন হচ্ছে তা একদিন প্রকৃতিই ফিরিয়ে দেবে। বোমা মেশিনের মাধ্যমে যারা অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করছে তাদেরকে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। আমাদের প্রাকৃতিক সম্পদ ও দেশকে রক্ষা করা সকলের দায়িত্ব। পুলিশ ও প্রশাসনের মাধ্যমে জনসচেতনা বৃদ্ধি করতে হবে। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাৎক্ষনিকভাবে জরিমান করলে অসাধু ব্যবসায়ীরা সাহস পাবে না অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করার। যারা অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের সাথে জড়িত তাদের হাত শক্তিশালী। তাই এদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ যারা প্রকৃতি বান্ধব তাদেরকে সাথে নিয়ে এই সমস্যা সমাধান করতে হবে। রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে বাদ দিয়ে রাষ্ট্রের কোন সমস্যা সমাধান কখনো সম্ভব না। তাদেরকে সম্পৃক্ত করতে হবে। প্রত্যেকটি কোয়ারিতে পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করতে হবে।

সুজন এর সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী সভাপতির বক্তব্য বলেন,আমাদের সবাইকে সোচ্চার হতে হবে, প্রতিবাদী হতে হবে। সৎভাবে একত্রে সকলে কাজ করতে হবে। সাধারণ মানুষের দু:খ কষ্টের কথা আমাদেরকেই তুলে ধরতে হবে। অবৈধ পাথর উত্তোলন বন্ধের জন্যে এলাকার মানুষ সহ শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন পেশার মানুষদের এগিয়ে আসতে হবে।

আলোচনায় সভায় অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের ফলে প্রকৃতি ও পরিবেশের যে ক্ষতি সাধিত হচ্ছে, এ ব্যাপাওে সংশ্লিষ্ট এলাকার ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ