• ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

মঞ্চায়িত হলো থিয়েটার বাংলা’র নাটক “ধূর্ত”

sylhetsurma.com
প্রকাশিত মার্চ ২, ২০২৪
মঞ্চায়িত হলো থিয়েটার বাংলা’র নাটক “ধূর্ত”

শনিবার (০২ মার্চ) সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের আয়োজিত একুশের আলোকে ১০ দিনব্যাপী নাট্য প্রদর্শনীতে ৫ম দিনে মঞ্চায়িত হলো থিয়েটার বাংলা সিলেটের ৩৪ তম প্রযোজনা নাটক “ধূর্ত”এ এটি রচনা ও নির্দেশনায় ছিলেন মোস্তাক আহমেদ।  এই নাটকের মুল বিষয় হলো জীবন জীবীকার তাগিদে মা-বাবাকে হারিয়ে বড় ভাই তার ছোট ভাইকে এলাকার চেয়ারম্যান এর মাধ্যমে একজন কৃপণের বাড়িতে পাঠায়। ছোট ভাইকে অনেক নির্যাতন করে ও প্রচুর কাজ করায় এমনকি ঠিকমতো খাইতেও দেয়না। পরে একসময় সে পলাইয়া আসে। এসে বড় ভাইকে সবকিছু খুলে বলে। তারপর বড় ভাই ঐ কৃপণের বাড়িতে যায় কাজের ছেলে সেজে। তারপর ঐ ধূর্ত ও কৃপণের সাথে ধূর্তামি করে তার বড় মেয়েকে বিয়ে করে প্রতিশোধ নেয়।  নাটকের চরিত্র রুপায়নে সিফাতউল্লাহ-মোস্তাক আহমেদ, জয়তুন বিবি-নুরুন্নাহার তালুকদার ঝুমুর জহির-অপু কুমার সেনাপতি, মৌলানা-মোঃ তাজুদ মিয়া কামালী, চেয়ারম্যান-এমরান আহমেদ রুবেল, সোনা মিয়া-গোপাল সূত্রধর, হাবলু-নির্ঝর তালুকদার, জরি-সুতপা বিশ্বাস পল্লবী, ছগির আলী-ওয়াদুদ আহমেদ রাসেল, রমিজ-জয়ন্ত কুমার দাস, চুড়িওয়ালী-তাসনোভা তাসনীম স্নেহা, নাটকের নেপথ্যে কাজ করেছেন যারা-মঞ্চ পরিকল্পনা : মোস্তাক আহমেদ, পোশাক পরিকল্পনা : মোস্তাক আহমেদ, রূপসজ্জা : রেজভী আরিফ দিপন, মঞ্চ সরবরাহ : চলন্তিকা ডেকোরেটার্স, আলোক প্রক্কেপন : বদরুল আলম, আবহ সংগীত : গোবিন্দ দেব এবং এমএসএ মাসুম খান, প্রযোজনা অধিকর্তা : মোঃতাজুদ মিয়া কামালী এবং নির্ঝর তালুকদার।  মঞ্চায়নের পর নাটকের নির্দেশককে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ থেকে দেয়া হয় সম্মাননা। বিজ্ঞপ্তি