খাদিমপাড়ায় খালেদ হত্যা মামলার ১০ দিনেও ধরা পড়েনি আসামিরা

প্রকাশিত: ২:৪৮ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৬

সিলেট সুরমা ডেস্ক ::: সিলেট সদর উপজেলার খাদিমপাড়াস্থ দাসপাড়ায় সিএনজি চালক খালেদকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হলেও ১০দিনেও পুলিশ কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এ ঘটনায় নিহত খালেদের মা সেলোয়ারা তাঁর ছেলের খুনিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। জানা যায়, হাড়পাড়ার বাসিন্দা মৃত আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী নিহত খালেদের মা সেলওয়ারা বাদি হয়ে গত ১০ আগস্ট শাহপরান থানায় ১০ জনের নামোল্লেখ করে ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলায় আসামিরা হচ্ছেন, মৃত মুখলেছুর রহমানের ছেলে জয়নাল, মৃত ময়না মিয়ার ছেলে ফরিদ, রফিকের ছেলে বাবুল, শাহিন উরফে কালা শাহিন (পিতা অজ্ঞাত), নজই আনোয়ারের ছেলে সামাদ, দাসপাড়ার ইসমাইলের ছেলে সেনাজ, হোসেন আলী ছেলে মাসুক, মৃত হারিছ আলীর ছেলে আনোয়ার, তুতা মিয়ার ছেলে মোস্তাক, আব্দুর রহমানের ছেলে খালেদ ও অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনকে।
মামলার এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, তাঁর ২য় ছেলে খালেদ (৩৭) পেশায় বিদ্যুৎ কর্মী ছিলেন। গত কয়েকদিন যাবৎ তিনি এ কাজ ছেড়ে সিএনজি-অটোরিকশা চালানো শিখেন। গত ১ মাস পূর্ব থেকে সালোয়ারা বেগমের নাতি মান্নার একটি সিএনজি-অটোরিকশা ভাড়ায় চালনো শুরু করেন খালেদ। গত ৬ আগস্ট রাত ২টায় আসামিরা যোগসাজস ও পরিকল্পিতভাবে তাঁর ছেলেকে দাসপাড়া সাকিনস্থ হুনাগুল নামক স্থানে শুকনা জমির উপরে হত্যা করে। হত্যার ঘটনা গোপন করার জন্য ছেলের লাশ ঘটনাস্থল থেকে অন্যত্র রাখার চেষ্টা করা হয়।
এ ব্যাপারে শাহপরান থানার সহকারী কমিশনার (এসি) একেএম সাজ্জাদুল আলম বলেন, খালেদকে হত্যা করা হয়েছে বলে খালেদের মা থানায় মামলা করেছেন। ঘটনাটি হত্যা কি না তা নিয়ে তদন্ত চলছে। আসামিরা পলাতক থাকায় গ্রেপ্তার করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০