রোববার আদালতে বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষী দেবে খাদিজা

প্রকাশিত: ৬:৩৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৭

স্টাফ রিপোর্টার ::::::
সিলেটে ফিরে তার ওপর হামলাকারী বদরুলের শাস্তি দাবি করলেন খাদিজা বেগম নার্গিস।  শুক্রবার দুপুর ১ টায় বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকা থেকে সিলেট পৌঁছান খাদিজা। পরে বেলা ২ টার দিকে তার জালালাবাদ থানার আউশায় গ্রামের বাড়িতে পৌঁছান।
বিমানবন্দরে নেমেই খাদিজা সাংবাদিকদের বলেন, আমি চাই বদরুলের বিচার দ্রুত শেষ হোক। তার শাস্তি হোক। খাদিজা বলেন, আমি এখন বেশ ভাল আছি, দেশবাসী আমার জন্য দোয়া করেছেন। সবার দোয়ায় ভাল আছি, সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরছি, খুব ভাল লাগছে। এসময় তিনি সবাইকে অতীতের মতো ভবিষ্যতেও পাশে পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
খাদিজার ভাই শরনান হক শাহীন বলেন, খাদিজা ফিরে আসায় পরিবারের সদস্যরা খুশি। চিকিৎসকদের আন্তরিক প্রচেষ্টার কারনেই সুস্থ্য হয়ে ফিরেছে খাদিজা। এর আগে চিকিৎসার অংশ হিসেবে গত ১ ফেব্রুয়ারী এক সপ্তাহের জন্য সিলেট আসেন খাদিজা।
খাদিজার বাবা মাসুক মিয়া বলেন, কাল রোববার আদালতে বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষী দেবে খাদিজা। বদরুলের যাতে সর্বোচ্চ শাস্তি হয় এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনিও।
কাল রোববার খাদিজা হত্যাচেষ্টা মামলায় সিলেটের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে সাক্ষী দেওয়ার কথা রয়েছে খাদিজার। এর আগেও সাক্ষী দেওয়ার কথা থাকলেও চিকিৎসকের ছাড়পত্র না পাওয়ায় আদালতে উপস্থিত হতে পারেননি খাদিজা।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, খাদিজা এখন অনেকটা সুস্থ। তিনি নিজের কাজ নিজে করতে পারছেন এবং তার স্মৃতিশক্তি ফিরে এসেছে।
উল্লেখ্য, গত বছরের ৩ অক্টোবর সিলেটের এমসি কলেজের পুকুর পাড়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের চাপাতির কোপে মারাত্মকভাবে আহত হওয়া খাদিজা বর্তমানে পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে (সিআরপি) চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর আগে আহত হওয়ার পর তিনি প্রথমে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। খাদিজাকে হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি বদরুল বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ