সিলেট শহরের খাদিমপাড়া এলাকার জোড়া খুনের মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৩:৪১ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্ট : সিলেট শহরের খাদিমপাড়া এলাকার জোড়া খুনের মামলার প্রধান আসামী আবু বকর সিদ্দিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। হত্যাকান্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় এ পর্যন্ত মোট চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাকি তিন আসামী এখনো পলাতক রয়েছেন। উল্লেখ্য,শহরতলির খাদিমপাড়া বিসিক শিল্প নগরী এলাকায় বিগত ০৯/০১/২০১৬ ইং তারিখে কয়েক জন দৃবৃত্ত্ব মটর বাইক যোগে এসে বনফুল কর্মচারী রাজুু দত্ত ও তপু নন্দীকে হত্যা করে এবং একই প্রতিষ্টানের কর্মচারী রাসেল মিয়াকে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় । উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করলে তাদের স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি মোতাবেক ঘটনার সাথে জড়িত আর চার জনের নাম আসে । সেই সূত্র মোতাবেক গতকাল রাতে গোপন সুত্রে খবর পেয়ে মৌলভীবাজার জেলার মুন্সীপাড়া থেকে উক্ত জোড়া খুনের প্রধান আসামীকে পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। বাকি তিনজন,মাখন মিয়া শহরতলীর কুয়ারপাড়ার বাসিন্দা,আব্দুর রাজ্জাক শহরতলীর তাতিপাড়ার বাসিন্দা,এবং অনুজ তালুকদার শহরতলীর নূরপূর ইসলামপুর এলাকার বাসিন্দা , ওরা তিনজন এখনো পলাতক রয়েছে ।
প্রধান আসামী আবু বকর সিদ্দিকীকে পুলিশ পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে। রনি আহমদ,মাখন মিয়া,লিটন হায়দার এবং আবু বকর সিদ্দিকী জামাতে ইসলামী বাংলাদেশ সিলট জেলার সদস্য,পংকি মিয়া বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সিলেট জেলা শাখার সত্রিয় সদস্য,আব্দুর রাজ্জক তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সিলেট জেলা শাখার সাবেক সহ-সভাপতি এবং অনুজ তালুকদার একজন স্থানীয় ব্যবসায়ী।
স্থানীয়দের মতে উক্ত জোড়া খুনের মামলায় আব্দুর রাজ্জাক এবং অনুজ তালুকদারকে উদ্দেশ্যে প্রণোধিত ভাবে জড়িত করা হয়েছে। মামলার ইনচার্জ তদন্তকারী অফিসার এসআই জাহিদ হাসানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,মামলাটি এখনও তদন্ত চলছে। সুষ্ট তদন্তের স্বার্থ তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত এখনও কিছু বলা সম্ভব নয়। এবং যত দ্রুত সম্ভব বাকি আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের বিশেষ টিম কাজ করছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ