মহান মুক্তিযুদ্ধে দক্ষিণ সুরমার মানুষ গৌরবময় ভূমিকা রেখেছেন : বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল হক

প্রকাশিত: ১১:৪৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯

মহান মুক্তিযুদ্ধে দক্ষিণ সুরমার মানুষ গৌরবময় ভূমিকা রেখেছেন : বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল হক

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল হক বলেন ‘‘সুরমা নদীর দক্ষিণ তীর ঘেষে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা জনপদের অবস্থান। শহরের কাছের জনপদ হওয়ায় ১৯৭১ সালের তৎকালীন সিলেটের বিভিন্ন জেলা ও থানার গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ও সদরের অনেক ইউনিয়ন পরিষদের অবস্থান ছিল এখানে। সড়ক ও রেলপথে মূল শহরে প্রবেশ করতে হয় দক্ষিণ সুরমা দিয়ে। ফলে অবস্থানগত কারণে এ জনপদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ । মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় এই জনপদের মানুষ গৌরবময় ভূমিকা রেখেছেন। একাত্তর এর ডিসেম্বর মাস। ১৩ ডিসেম্বর ঐদিনে দক্ষিণ সুরমার সম্মুখ যুদ্ধ ও পাকহানাদার মুক্ত হয় কদমতলীসহ গোটা দক্ষিণ সুরমা’’
দক্ষিণ সুরমার সম্মুখ যুদ্ধ ও মুক্ত দিবস উপলক্ষে কদমতলী মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল হক উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র(১) ও ২৬ নং ওয়ার্ডের পরপর ২ বারের নির্বাচিত কাউন্সিলর রোটারিয়ান তৌফিক বকস্ লিপন ও জেলা তাঁতী লীগের আহবায়ক আলমগীর হোসেনের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্যে রাখেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্যে রাখেন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম আহমদ, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র আজম খান, বাংলাদেশ সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সভাপতি লুৎফুর রহমান লেবু। সভায় মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা তোতা মিয়া, সোয়েব আহমদ, আকতার আহমদ,নাজিম উদ্দিন, বাবুল মিয়া, হাবিবুর রহমান হাবিব, সানাউর আলী, মনির উদ্দিন, শহীদ খান, গুলজার খান। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য হেলাল বকস্, সমাজসেবী মুকির হোসেন চৌধুরী, ২৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নিজাম উদ্দিন ইরান, আওয়ামী লীগ নেতা হাজী গুলজার আহমদ, ইছাখ মিয়া, মকবুল হোসেন, কবির আলী, ঝালোপাড়া পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক জুনেদ আহমদ, আওয়ামী লীগ নেতা বদরুল ইসলাম, এডভোকেট আফজাল হোসেন, যুবলীগ নেতা মুহিবুর রহমান মুহিব, জাকির হোসেন, তাঁতিলীগ নেতা বেলাল আহমদ রাজু, তরুণ ছাত্রনেতা ফাহাদ আহমদ, মোহন আহমদ, খাজেদ আহমদ প্রমুখ। সভা শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের উপহার হিসেবে চাদর পড়িয়ে দেন প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ। পরে এক মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে সিলেট ও সিলেটের বাইরের শিল্পীরা গান পরিবেশন করেন। প্রেস-বিজ্ঞপ্তি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •