পাঁচটি অভ্যাস ত্যাগ করুন, জীবনে টাকা পয়সার আর অভাব ঘটবে না

প্রকাশিত: ৮:৪০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৪, ২০১৮

 পাঁচটি অভ্যাস ত্যাগ করুন, জীবনে টাকা পয়সার আর অভাব ঘটবে না

সিলেট সুরমা ডেস্ক : টাকা পয়সা, ভালোভাবে বললে অর্থ, অর্থ ছাড়া আমাদের জীবনে কিছুই প্রায় সম্ভব নয়। আমরা সারাজীবনই কিভাবে আরও আরও অর্থ আসবে সে চিন্তা করি। কিভাবে আমরা আরও বেশি বড়লোক হবো সেই কথা ভাবি। কিন্তু বড়লোক বললেই তো আর বড়লোক হওয়া যায় না, টাকা আয় করবো বললেই তো আর টাকা আয় করা যায় না। তার জন্যে লাগে সঠিক পদ্ধতি, সঠিক ভাবে সঠিক দিশায় এগিয়ে যাওয়া।

দেখুন এটা আপনাকে মানতেই হবে যে আজকের দিনে টাকা ছাড়া আপনি বেকার। জীবনের প্রতি পদক্ষেপে আজকের দিনে আপনার টাকা লাগবেই। কিন্তু চাইলেই তো আর হয়না, টাকা রোজগার তো আমরা সবাই চাইলেই করতে পারি না। তার এর সাতগে যুক্ত হয়েছে আনাদের নিত্যদিনের কিছু বাজে অভ্যাস। আমাদের প্রতিদিনের জীবনে এমনবকিছু বাজে অভ্যাস আমরা তৈরি করেছি যেগুলোর জন্যে আমাদের কাছে অর্থ এসেও আসে না। তো আজ এই প্রতিবেদনে আমরা সেগুলোই জানবো। তো আসুন জেনে নিই কি সেগুলো

১। কোন খাবার খাওয়ার পর, শেষে যদি কিছু বেশি থাকে বা আমরা যদি কিছু পরিমান খাবার না খেতে পারি তাহলে সেটা আমরা সেই খাবার প্লেটেই ফেলে রাখি। কিন্তু এভাবে নোংরা প্লেটে মা লক্ষ্মীর দেওয়া প্রসাদ ফেলে রাখতে নেই। তাতে মা লক্ষ্মী খুবই অপ্রসন্ন হন। তাই খাবার অল্প নিন,লাগলে পরে আবার নিন কিন্তু নষ্ট একদমই নয়।

২। খাওয়ার পর নিজের নিজের থালা নিজে নিহেই ধুতে ফেলুন। নতুবা ওইভাবে খাওয়ার পর ওভাবে খাওয়ার থালা ফেলে রাখলে তাতে মা অন্নপূর্ণার প্রতি অসম্মান করা হয়। তাই ভুলেও আজ থেকে আর এমনটা করবেন না।

৩। নিজের বিছানা প্রতিদিন নিজেই পরিষ্কার করুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে সবার আগে নিজের বিছানা টা ঝাড়ুন, তারপর সুন্দর পরিপাটি করে বিছানা টা গুছিয়ে রাখুন। বিছানা একদমই ফেলে রাখবেন না। শাস্ত্র মতে বলে বিছানা ও ঘর পরিষ্কার রাখলে মা লক্ষ্মী সবসময় আপনার পরিবারে বসত করবে।

৪। সন্ধ্যা বেলায় ঘর বাড়ি ঝাড়পোঁছ করা বা মোছামুছি থেকে বিরত থাকুন। কারণ হিন্দু শাস্ত্র মতে সন্ধ্যে বেলা বাড়ি মা লক্ষ্মী থাকে। তাই সন্ধ্যেবেলা কোন মতেই যেন মা লক্ষ্মী বিদায় না নেয় সেটা দেখতে হবে।

৫। কোন স্থান, সেটা বাথরুম হোক বা আপনার ঘর বা রাস্তাঘাট কোন সময় নোংরা করবেন না। বাথরুম স্নান করে পরিষ্কার করে দেবেন, রাস্তাঘাটে যেখানে সেখানে থুতু ফেলবেন না।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •