সিঙ্গাপুরের পার্কওয়ে হাসপাতালের তথ্য সেবা এখন সিলেটে

প্রকাশিত: ৯:১৮ অপরাহ্ন, মে ১৪, ২০১৯

সিঙ্গাপুরের পার্কওয়ে হাসপাতালের তথ্য সেবা এখন সিলেটে

সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য আর দুশ্চিন্তায় পোহাতে হবে না। চিকিৎসা নেওয়ার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ভিসা জটিলতা, চিকিৎসার খরচ, সময়কাল, চিকিৎসকের অ্যাপয়েন্টমেন্ট , যাতায়াত, সবকিছু এখন হাতের নাগালেই।
সিলেটের চৌহাট্টায় মানরু শপিং সেন্টারের ৩য় তলায় স্থাপিত হয়েছে সিঙ্গাপুরের পার্কওয়ে হাসপাতাল লিমিটেডের তথ্য সেবা কেন্দ্র ২৪ ঘন্টা খোলা থাকবে। পাওয়া যাবে চিকিৎসা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য।

মঙ্গলবার (১ মে) বিকেলে সিলেটের একটি অভিজাত হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান সিঙ্গাপুরের পার্কওয়ে হাসপাতাল লিমিটেডের বাংলাদেশ অফিসের পরিচালক জাহিদ খান। এসময় উপস্থিত ছিলেন-হাসপাতালের এশিয়া রিজিওনের মার্কেটিং হেড মি. ভিনসেন্ট লাই ও পার্কওয়ে প্যানথাই’র এশিয়া রিজিওনের মার্কেটিং হেড মি. ম্যাক্সটান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সিলেটে স্থাপিত অনুসন্ধান কেন্দ্রে নতুন পুরাতন সকল রোগীই তথ্য সেবা নিতে যোগাযোগ করতে পারবেন। নতুন রোগীদের সেবার মধ্যে রয়েছে চিকিৎসকদের সেবার নাম, হাসপাতালে কতদিন থাকতে হবে তার উত্তর, এ জন্য রোগীকে অবশ্যই তার পুরাতন মেডিকেলের কাগজপত্র ই-মেইৈে বা সরাসরি অফিসে এসে দিয়ে যেতে হবে। এরপর রোগীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ভিসা আমন্ত্রনপত্র, চিকিৎসকের অ্যাপয়েনমেন্ট, বিমানের টিকিট, বিমানবন্দর থেকে পিকআপ, হোটেল বুকিং এবং মেডিকেল ভিসা ফরমপূরণে সুবিধাগুলো দেওয়া হবে। এ জন্য রোগী ও তার সঙ্গে কমপক্ষে ১ জন বা সর্বোচ্চ ২ জন তত্ত্বাবধায়কের পাসপোর্ট কপি দিতে হবে।

জাহিদ খান বলেন, সিঙ্গাপুরের পার্কওয়ে হাসপাতাল থেকে ফিরে আসার পর পুরাতন রোগীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নতুন করে আবার সিঙ্গাপুরে না গিয়েও সিলেটে বসে ডাক্তারের পরবর্তী পরামর্শ নিতে পারবেন। এছাড়া ২৪ ঘন্টা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের সুুবিধা থাকছে। সিলেটে ২৪ ঘন্টা যোগাযোগ করা যাবে ০১৯৮৮৭৭৭৭১১ নাম্বারে এবং মার্কেটিং সমন্বয়কারীর সঙ্গে ০১৯৮৮৭৭৭৭৩৩ ও ০১৯৮৮৭৭৭৭৪৪ নাম্বারে যোগাযোগ করা যাবে।

জাহিদ খান আরো বলেন, সিঙ্গাপুর পার্কওয়ে হাসপাতাল (প্রা.) লিমিটেডের তত্ত্বাবধানে আরো চারটি হাসপাতাল রয়েছে। এগুলো হলো- মাউন্ট এলিজাবেথ অর্চাড হাসপাতাল, মাউন্ট এলিজাবেথ নভেনা হাসপাতাল, গ্লেন ঈগলস হাসপাতাল এবং পার্কওয়ে ইস্ট হাসপাতাল।
অনুষ্ঠান শেষে ফিতা কেটে সিলেটে ইনফরমেশন সেন্টারের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ। প্রেস-বিজ্ঞপ্তি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ