জঙ্গিরা কোম্পানির ম্যানেজার পরিচয়ে দুটি বাড়ি ভাড়া নেয়

প্রকাশিত: ২:৩০ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৯, ২০১৭

সিলেট সুরমা ডেস্ক : মৌলভীবাজারে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা দুটি বাড়ির মধ্যে একটি বাড়ি ভাড়া নেয়াহয় বেসরকারি কোম্পানির ম্যানেজার পরিচয়ে। তিন মাস আগে মৌলভীবাজার পৌরসভার বড়হাট এলাকার বাসাটি ভাড়া নেয়া হয়। ভাড়া নেয়ার সময় ওই জঙ্গি নিজের নাম বেলাল বলে বাড়ির কেয়ারটেকারকে জানিয়েছিল।

বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে খলিলপুর ইউনিয়নের নাসিরপুর এলাকার জঙ্গি আস্তানা ঘিরে রাখার সময় সেখানে দায়িত্বরত সহকারী পুলিশ সুপার রওশওউজ্জামান সিদ্দিকী গণমাধ্মেকে এই তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গত জানুয়ারিতে বড়হাট এলাকার বাসাটি ভাড়া নেন বেলাল। বাড়ির কেয়ারটেকার জুয়েল মিয়ার কাছ থেকে তিনি মাসিক সাত হাজার ২০০ টাকায় বাসাটি ভাড়া নেন। এসময় বেলাল নিজেকে আরএফএল কোম্পানির ম্যানেজার পরিচয় দেন। বাড়িটিতে বেলালের সঙ্গে তার শ্বশুর ও তিন শিশু থাকতেন।

পুলিশ কর্মকর্তা রওশনউজ্জামান আরও বলেন, বেলালের মাধ্যমে নাসিরনগরের গ্রামের বাড়িটি ছয় হাজার ৬০০ টাকায় ভাড়া নেন মাহফুজ নামে একজন। সেখানে তার সঙ্গে আছে শ্বশুর শাশুড়ি ও চার শিশু।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, পুলিশ, র‌্যাব ও কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা বাড়িটি ঘিরে রেখেছে। অভিযান চালানোর জন্য সোয়াটের অপেক্ষা করা হচ্ছে। তারা পৌঁছলেই অভিযান চালানোর পরিকল্পনা নেয়া হবে।

এদিকে সকালে নাসিরনগর গিয়ে দেখা গেছে উৎসুক জনতার ভিড়। বাড়িটির আশপাশের সব বাসিন্দাদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সাংবাদিকসহ কাউকে ওই এলাকায় যেতে দেয়া হচ্ছে না। সকাল থেকে বাড়িটি থেকে থেকে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। তবে ভেতরে কতজন জঙ্গি আছে সে সম্পর্কে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি।

প্রসঙ্গত, রাত তিনটা থেকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়িটি ঘিরে রাখা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। সকাল থেকে দুটি বাড়ি থেকে গোলাগুলি ও গ্রেনেড বিস্ফোরনের শব্দ শোনা যায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই দুই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •